ক্লাসিক ফোন নিয়ে ফিরে আসছে Nokia



Nokia একসময় বিশ্ব বাজারে তাদের মোবাইল ফোনগুলো নিয়ে একাই রাজত্ব করেছে। তাদের ফিচার ফোনগুলো সেসময় ক্রেতাদের আকৃষ্ঠ করতে সক্ষম হয়েছিলো। তবে স্মার্টফোনের জনপ্রিয়তা বাড়ার সাথে সাথে। স্মার্টফোন দুনিয়া থেকে প্রায় ছিটকেই গিয়েছিলো নোকিয়া। যদিও মাইক্রোসফট অপরেটিং সিস্টেম পরিচালিত কিছু স্মার্টফোন Nokia বাজারে এনেছিলো। কিন্তু সে ফোনগুলি জনপ্রিয়তা তৈরি করতে পারিনি। যখন অন্য কম্পানিগুলো অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন নিয়ে বাজার দখল করে ফেলেছিলো তখন নোকিয়া কম্পানিটির স্মার্টফোন দুনিয়া থেকে প্রায় ছিটকে যাওয়ার উপক্রম হয়েছিলো। ঠিক তখনি এইচএচডি গ্লোবালের হাত ধরে নোকিয়া আবার ফিরে আসার চেষ্টা করে। নোকিয়া বর্তমানে কিছু মডেল বাজারে এনেছে। যা ক্রেতাদের কাছে অনেকটা গ্রহনযগ্যোতা পেয়েছে। তবে বর্তমানে অ্যান্ড্রয়েড এর পাশাপাশি সেকেন্ডারি ফোন হিসাবে ক্রেতারা ফিচার ফোনের দিকে ঝুঁকছে। ক্রেতাদের মন জয় করতে নোকিয়া তাদের স্বর্ণযুগের ক্লাসিক ফেনগুলো নতুনভাবে ফিরিয়া আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অবস্য বিগত কয়েক বছরে Nokia 3310, Nokia 8110 4G, Nokia 5310 এবং Nokia 2720 Flip এর মতো কিছু জনপ্রিয় ফিচার ফোন বাজারে এনেছে এইচএচডি গ্লোবাল। এবার নোকিয়া তাদের দুইটি ক্লাসিক ফোট নতুন ভাবে বাজারে আনার পরিকল্পনা করছে।



নোকিয়ার আপকামিং ফিচার ফোন দুটির মডেল হলো ; Nokia 6300 এবং Nokia 8000। Nokia 6300 ফিচার ফোনটি একসময় অনেক জনপ্রিয় ছিলো। ফোনটির সাথে অনেকের বিভিন্ন স্মৃতি জড়িত থাকার কথা। তখনকার দিনে ফোনটির ডিজাইন ছিলো নজরকাড়া। সে সময় ফোনটি বাজারে অনেকটা রাজত্ব করেছিলো। বলতে গেলে মিডরেন্জে সে সময় ফোনটি ছিলো সবার সেরা এবং বিজনেস ইউজারদের প্রথম পছন্দ ছিলো ফোনটি। অন্যদিকে Nokia 8000 সিরিজের অধীনে অনেকগুলো মডেলের ফোন বাজারে এসেছিলো কম্পানিটি। Nokia 8000 মডেলটা ছিলো মুলত স্লাইডাে ফর্ম ফ্যাক্টর এবং ধাতব কেসিংয়ের কারুকাজ করা। তবে নোকিয়ার এসব ফিচার ফোন নতুন করে বাজারে আনার বিষয়ে অফিসিয়ালি কোনো কনফার্মেশন পাওয়া যায় নি। তবে নোকিয়া সম্পর্কে নিউজ সরবরাহকারী নিউজ পোর্টাল সাইট nikiamob.net একটি নিউজ প্রকাশ করেছে। সেখানে বলা হয়েছে, Nokia 6300 এবং Nokia 8000 ফোনটি KaiOS অপারেটিং সিস্টেম এবং ৪জি কানেক্টিভিটির সাথে নতুন করে বাজারে আসতে পারে ফিচার ফোনদুটি। এই ফোনগুলোকে নতুন করে ফ্রেশ ডিজাইন দিয়ে বাজারে আনা হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
এখন দেখার বিষয় নোকিয়া তাদের ফিচার ফোনদুটি বাজারে এনে পূর্বের ন্যায় জনপ্রিয়তা লাভ করতে পারে কিনা।
আপনার কি ধারনা নোকিয়া পারবে কি পূর্বের মতে জনপ্রিয়তা অর্জন করতে। কমেন্ট বক্সে অবশ্যই জানাবেন।
আমাদের অনুপ্রাণিত করতে
বন্ধুদের মাঝে নিউজটি শেয়ার করুন
ধন্যবাদ


Post a Comment

0 Comments