Header AD

ঈদের ছুটিতে অল্প খরচে ঘুরে আসুন ইন্ডিয়া থেকে-১ম পর্ব

 

অল্প খরচে ঘুরতে গেলে আপনাকে যে বিষয়ের দিকে লক্ষ রাখতে হবে:

১। আপনাকে বাই রোডে ভ্রমন করতে হবে।
২। যারা অল্পতেই নাক সিটকান তারা। ভুলেও এদিকে চোখ দিবেন না।
৩। ভ্রমনটাকে সুন্দর করতে সাথে একটা স্মার্টফোন রাখুন।
৪। পরিবহণের ক্ষেত্রে নন এসি পরিবহণ সিলেক্ট করুন,অন্যথায় খরচ বেশি পড়বে।
৫। অবশ্যই দুই জন কিংবা তার বেশি মানুষ একসাথে ভ্রমনে যাবেন। তা না হলে হোটেল খরচ বেশি পড়বে।
৬। যেহেতু আপনি অল্প খরেচে ভ্রমন করতে চাচ্ছেন সেহেতু আপনাকে বিভিন্ন ছোট খাটো সমস্যার মুখোমুখি পড়তে হতে পারে।সেটা মেনে নেবার মতো মানুষিকতা তৈরি করুন।

ভ্রমনে আপনার যেসব জিনিস অবশ্যই সাথে রাখবেন:



১। আপনার ভিসা সংযুক্ত পার্সপোর্ট।
২। পার্সপোর্ট এর ফটোকপি।
৩। আপনার ইন্ডিয়ান ভিসার ফটোকপি।
৪। পার্সপোর্ট সাইজের ২ কপি ছবি।
৫। স্মার্ট ফোন এবং যদি স্মার্ট ফোনে গুগোল     ম্যাপ না থাকে তবে অবশ্যই ইনিস্টাল করে নিন।যা আপনার ভ্রমনকে আরও সহজ এবং সুন্দর করে তুলবে।
৬। একটি গামছা আর যদি লুঙ্গি পরার অভ্যাস থাকে তবে দুইটি লুঙ্গি সাথে নিয়ে নিন।ঘোরাঘুরি শেষে লুঙ্গি পরে হোটেলে বসে বিশ্রাম নিতে ভালো লাগবে।
৭। গোসলের জন্য সাথে করে সাবান এবং শ্যাম্পু নিয়ে যেতে পারেন।কিন্তু না নিতে চাইলেও সমস্যা নেই।দাদাদের দেশ থেকে কিনে নিবেন।
৮। যেহেতু অল্প খরচে ইন্ডিয়া যাচ্ছেন সেহেতু একটু বেশি পরিমানে হাটাহাটি করতে হতে পারে।বেশি হাটাহাটি করলে পানি পিপাসা লাগতে পারে। তাই সাথে সবসময় মিনারেল ওয়াটার রাখুন।
৯। কম খরচে ইন্ডিয়া যাচ্ছেন ঠিক আছে কিন্তু প্রিয় মানুষদের জন্য তো কিছু কেনাকাটা করতে হবে।কিংবা নিজের থাকা খাওয়ার জন্য তো টাকা লাগবে। এ কারনে পর্যাপ্ত পরিমানে টাকা সাথে রাখুন।
১০। যেহেতু অল্প খরচে ইন্ডিয়া ভ্রমন করবেন সেহেতু ইন্ডিয়াতে হয়তো আপনাকে বাস কিংবা ট্রেনে যাতায়াত করতে হতে পারে। বাস এবং ট্রেনে খুব বেশি পরিমানে ভিড় থাকাতে বড় ব্যাগপত্র সাথে রাখলে অনেক সমস্যা হতে পারে।এ কারনে বড় ব্যাগ পরিহার করুন। সাথে স্কুল ব্যাগ নিন তাতে আপনার সুবিধা হবে।
১১। ভ্রমনের সুন্দর সুন্দর মুহূর্ত কে ক্যামেরা বন্ধি করতে চাইলে সাথে একটা ক্যামেরা নিতে পারেন।যখন আপনি কোনো সুন্দর স্থানে যাবেন সাথে সাথে সেগুলি ছবি তুলে নিন।
১২। যদি আপনার পরিচিত কারও কাছে ইন্ডিয়ান সিম থাকে তবে অবশ্যই সাথে নিবেন।তা না হলে আপনাকে  সিম কিনতে নতুন করে ঝামেলা করতে হবে।

কোন সিমান্ত দিয়ে ইন্ডিয়াতে প্রবেশ করবেন এবং কিভাবে কি করবেন:

ইন্ডিয়া

দেশের যেকোনো স্থান থেকে বেনাপোল পর্যন্ত টিকিট কাটুন।ঢাকা থেকে বেনাপোলের ভাড়া হয়তবা ৫০০ /- টাকার কাছাকাছি হতে পারে।অন্য অঞ্চল থেকে আমার কোনো ধারনা নেই আমার বাসা বেনাপোল অঞ্চলের দিকে হওয়ায় আমাকে এই অতিরিক্ত খরচটা আর গুনতে হয় না।
বর্তমানে আবার ঢাকা টু কলকাতার অনেক বাস সার্ভিস রয়েছে।তবে সেটা বোধহয় একটু খরচ সাপেক্ষ। এর একটা সুবিধা অবশ্য আছে আপনি সরাসরি বাসে করে একেবারে কোলকাতাতে নামতে পারবেন। তবে আপনাকে বেনাপোল নেমে ইমিগ্রেশন অফিসে যেতে হবে ইমিগ্রেশনের জন্য।পরে আপনি বর্ডারের অপর প্রান্তে যেয়ে আপনার বাসটিতে উঠতে পারবেন।খরচ বেশি হওয়াতে আপনি এই বাসের চিন্তা বাদ দিন।
আপনি যেভাবে আসুন না কেনো বেনাপোলে সকাল ৬ টার আগে এসে পৌছাবেন।বেনাপোলে এসে বাস থেকে নেমে আপনি ভ্যান কিংবা ইজি বাইকে করে ইমিগ্রেশন অফিসে যান।ভাড়া লাগবে জন প্রতি ১০ /- টাকা।তবে আপনি হেঁটেও যেতে পারেন। কারন বাস কাউন্টার থেকে ইমিগ্রেশন অফিস খুব একটা দুরে নয়।ইমিগ্রশন অফিসে লাইনে অনেকে দাড়িয়ে আছে।আপনি লাইনে দাড়িয়ে যান।লাইনে দাড়িয়ে একটি ইমিগ্রেশন ফরম পুরন করতে হবে। নিজে পুরন করতে পারলে নিজে পুরন। না করতে পারলে আশেপাশে দালাল থাকবে ওদেরকে ১০ টাকা দিলে ফর্ম পুরন করে দিবে।এরপর আপনাকে বাংলাদেশ সরকার কে ভ্রমন ট্যাক্স দিতে হবে। জন প্রতি ৫০০/- টাকা।নিজে দিতে চাইলে নিজে দিতে পারেন অথবা দালাল ধরতে চাইলে ধরতে পারেন।আমার এক পরিচিত ভাই ইমিগ্রেশন অফিসে কাজ করাতে আমার কোনো ঝামেলা পোহাতে হয় নি।ভ্রমন ট্যাক্স জমা দেবার পরে ওখান থেকে আপনাকে দুইটা রশিদ দেওয়া হবে।রশিদ দুইটা সাথে রাখুন।এরপর একটু সামনে গেলে রশিদে সিল মেরে আপনাকে একটা রশিদ দিবে। আর ওরা নিজেরা একটা রেখে দিবে। রশিদটি নিয়ে সামনের দিকে গেলে আপনার পার্সপোর্ট দেখালে ওরা সিল মেরে দেবে।
এরপর ইন্ডিয়ার গেটের কাছে দাড়িয়ে থাকুন।

ইন্ডিয়ার গেট বাংলাদেশ সময় ৭ টার সময় খুলে দেবে।খুলে দেবার পর বাংলাদেশের ২ জন পুলিশ আপনার পার্সপোর্ট চেক করার জন্য দাড়িয়ে থাকবে। ছাত্র কিংবা ব্যবসায়ী হলে ছেড়ে দিবে।চাকরী করলে এনওসি চাইবে। না দিতে পারলে ৫০০/- চাইবে।তবে একটু চেষ্টা করলে ২০০ /- টাকাতে মিটে যাবে। এবার আস্তে আস্তে ইন্ডিয়া ইমিগ্রেশন অফিসের দিকে আগাইতে থাকেন।

চলতে থাকিবে.....................


Post a Comment

Post a Comment (0)

Previous Post Next Post

ads

Post ADS 1

ads

Post ADS 1